চিরকুমার সমিতির সদস্যদের হতাশা

  ২, সেপ্টে ২০১৪  |    Online Desk, আজব গুজব  |    326

সোমবার ‘দৈনিক বাংলাদেশ প্রতিদিন’ পত্রিকার প্রথম পাতায় “বিয়ে করছেন রেলমন্ত্রী” শিরোনামে সংবাদটি দেখে এবং জেনে কুমিল্লায় আলোচিত ‘চিরকুমার সমিতি’র সদস্যদের মধ্যে দারুন হতাশা ও লজ্জা দেখা দিয়েছে। কারণ তিনি ছিলেন গত দুইযুগ ধরে সারাদেশে আলোচিত ‘চিরকুমার সমিতি’র প্রধান উপদেষ্টা।

পত্রিকায় খবর দেখে সংগঠনের মহাসচিব কুমিল্লা বিএমএ’র সাধারণ সম্পাদক গতকাল সকালে মাননীয় প্রধান উপদেষ্টাকে এ বিষয়ে মোবাইল করলে তিনি প্রাণখোলা হাসি দিয়ে মহাসচিবের মাধ্যমে সংগঠনের সবাইকে আগামী ডিসেম্বরে অনুষ্ঠিত বিয়ের অনুষ্ঠানে অগ্রীম দাওয়াত দেন। হৃদয়ে এক বুক জ্বালা নিয়ে মহাসচিব মোবাইলে তাঁর সুখী দাম্পত্য জীবন কামনা করেন। পরে মহাসচিব উক্ত সংগঠনের সভাপতি কুমিল্লার বিশিষ্ঠ সমাজ সেবক প্রদীপ কুমার পাল বাবলুর সাথে আলাপ করে তাঁরা জরুরী সভায় সিদ্ধান্ত নেন, তাদের নুতন প্রধান উপদেষ্টা মনোনীত করতে হবে যেন ডিসেম্বরে বিদায়ী প্রধান উপদেষ্টার বিয়ের অনুষ্ঠানের পরপরই তাঁর নাম ঘোষনা করা যায়।
সাম্প্রতিক কালে এই সমিতির ৩৩ সদস্যের মধ্যে ৩ জন ৪০ নিু বয়সী বিয়ে করে ফেলায় তাদের বহিস্কার করা হয় এবং সিদ্ধান্ত গৃহীত হয় যে, তখন থেকে ৪০ বছরের নিচে কোন পুরুষকে এই সংগঠনের সদস্যপদ দেয়া হবে না। কিন্তু ৬৮ বছর বয়স্ক প্রধান উপদেষ্টার বিয়ের সিদ্ধান্ত শুনে তাদের মাথায় যেন বিনা মেঘে বজ্রপাত। তাদের এখন বোধোদয় হয়েছে আসলে বিয়ের কোন বয়স নাই। তাই নবীন-প্রবীন সকল সদস্যদের ব্যাপারে সাবধান থাকতে হবে।
এই সংগঠন থেকে কেউ সরে গিয়ে বিয়ে করলে সংগঠনের সদস্যরা নিমন্ত্রণ পেলে বড় মন নিয়ে বিয়ের অনুষ্ঠানে যান এবং একটি শোকগাঁথা পড়ে শোনান ও নব দম্পতির মঙ্গল কামনা করেন। নেতৃবৃন্দ বলেন, বাংলাদেশে মানুষের গড় আয়ু এখন ৬৮ বছরেরও বেশি, এই বয়সেও বাংলাদেশীরা বিয়ে করে জেনে সারা বিশ্ব এখন বুঝবে বাংলাদেশের স্বাস্থ্য ব্যবস্থা সত্যিই উন্নত এবং তা এখন সারা বিশ্বের মডেল। ‘দৈনিক বাংলাদেশ প্রতিদিন’ এর প্রতিবেদনে দেখা যায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, “এতদিন ট্রেনের ইঞ্জিন ছিল। এবার ইঞ্জিনের সঙ্গে বগিও যুক্ত হচ্ছে”।
কুমিল্লার চিরকুমার সমিতি মনে করে তাদের বিদায়ী প্রধান উপদেষ্টা যেমনি রেলপথে ইঞ্জিন ও বগি ভালোভাবে চালাচ্ছেন, তেমনি দাম্পত্য জীবনের ইঞ্জিন ও বগিও ভালোভাবেই চালাবেন। সারাদেশে আলোচিত চিরকুমার সমিতির মহাসচিব ডা. মোহাম্মদ আজিজুর রহমান সিদ্দিকী বলেন- মাননীয় রেলপথ মন্ত্রী বিগত সরকারের শেষ সময়ে মন্ত্রীত্ব গ্রহণ করে বলেছিলেন, খেলার শেষে কে নামল, কে আগে নামল- সেটা বড় কথা নয়, খেলায় দলকে কে জেতাল- সেটাই বড় কথা। চিরকুমার সমিতি মনে করে তাদের প্রাণপ্রিয় বিদায়ী প্রধান উপদেষ্টা দেরীতে বিয়ে করলেও মন্ত্রীত্বে যেমনি দেরীতে নেমেও সফল হয়েছেন তেমনি দাম্পত্য জীবনেও দেরীতে নেমে ইনশাল্লাহ ভালোই করবেন। কথায় বলে “শেষ ভালো যার- সব ভালো তার”।
উল্লেখ্য, কুমিল্লায় দুই যুগের অধিক সময়ে দায়িত্ব প্রাপ্ত চিরকুমার সমিতির বিদায়ী প্রধান উপদেষ্ঠার বিয়ের সংবাদে সদস্যদের মধ্যে এখন দারুন হতাশা দেখা দিয়েছে এবং সংগঠনটির প্রতি মানুষের আস্থা অনেকখানি কমে যাওযায় তারা লোক লজ্জার মুখে পড়েছে, নেতৃবৃন্দ প্রায় বাকরুদ্ধ।

সংশ্লিষ্ট খবর

মা হলেন সান্ড্রা বুলক

  ৩, ডিসে ২০১৫  |    222

সুলতান ছবির প্রসংশায় শাহরুখ খান

  ১৩, এপ্রি ২০১৬  |    353

লালনেই কাটাতে চান সালমা

  ২১, অক্টো ২০১৪  |    798