বিতর্ক–আড্ডায় জীবনানন্দ

  ১৯, ফেব্রু ২০১৫  |    Online Desk, ডেস্ক রিপোর্ট  |    606

জীবনানন্দ উৎসবের দ্বিতীয় দিনে তিনি ‘প্রকৃতির কবি না প্রেমেরই কবি’—এই নিয়ে বিতর্কের ঝড় উঠল গতকাল বুধবার। জীবনানন্দ দাশের পৈতৃক বাড়িতে জীবনানন্দ অঙ্গন মুখর হয়ে ওঠে কবি আড্ডা এবং বিতর্কে। এর সঙ্গে ছিল জীবনানন্দ দাশের কবিতাভিত্তিক চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা।
নির্জনতার কবি জীবনানন্দ দাশের ১১৬তম জন্মদিন উপলক্ষে আয়োজিত তিন দিনের উৎসব পরিণত হয় মিলনমেলায়। বরিশাল অঞ্চলের কবি-সাহিত্যিকদের পদচারণে মুখরিত থাকে জীবনানন্দ দাশ স্মৃতি মিলনায়তন এবং অশ্বিনীকুমার হল।
সকাল ১০টায় বরিশালের আঁকিয়েরা জীবনানন্দ দাশের কবিতায় ফুটিয়ে তোলেন বাংলার রূপবৈচিত্র্য। বেলা ১১টায় শুরু হয় বিতর্ক প্রতিযোগিতা। বিতর্ক শেষে দুপুর ১২টায় বসে কবি আড্ডা। সেখানে কবিরা তাঁদের লেখার সঙ্গে জীবনানন্দ দাশের লেখার মিল এবং অমিল খুঁজে ফেরেন। কবিরা গল্প এবং নিজেদের লেখা কবিতা পাঠ করেন।
বিকেল চারটায় অশ্বিনীকুমার হলে বসে বরিশাল অঞ্চলের সৃজনশীল কবি, সাহিত্যিক ও সুধী সমাবেশ, কবিতা পাঠ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানমালা। উৎসব উপলক্ষে নানা আয়োজনের সঙ্গে অশ্বিনীকুমার হলে চলে বইমেলা। মেলায় বরিশালের ১০টি প্রতিষ্ঠান অংশ নেয়।
উৎসবের প্রথম দিনেই কবিতার শহর বরিশালে ফিরে এসেছিলেন জীবনানন্দ দাশ। কবির ১১৬তম জন্মদিনে গত মঙ্গলবার তাঁর শরীরী উপস্থিতি হয়তো ছিল না, কিন্তু এ শহরে দিনমান ছিল বর্ণিল আয়োজনে জীবনানন্দ-বন্দনা।
কবির জন্মদিন উপলক্ষে এ দিন পৈতৃক বাড়ি জীবনানন্দ দাশ সড়কের স্মৃতি মিলনায়তন ও অশ্বিনীকুমার হল ছিল বিশিষ্টজনদের পদচারণে মুখরিত। রূপসী বাংলার কবিকে নতুন প্রজন্মের কাছে তুলে ধরাই ছিল মূল উদ্দেশ্য।
বিকেলে অশ্বিনীকুমার হলে আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করা হয় তিন দিনের এই উৎসব। সরকারিভাবে প্রথমবারের মতো এই উৎসব হচ্ছে। উৎসব উদ্বোধন করেন বিভাগীয় কমিশনার মো. গাউস। জেলা প্রশাসক মো. শহীদুল আলমের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আলোচনা করেন বরিশাল শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান জিয়াউল হক, ব্রজমোহন কলেজের অধ্যক্ষ এম ফজলুল হক, জীবনানন্দ উৎসবের সমন্বয়ক অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক আবদুল্লাহ আল মামুন, বাংলাদেশ গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশনের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য নাট্যজন সৈয়দ দুলাল, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব কাজল ঘোষ, ব্রজমোহন কলেজের বাংলার শিক্ষক দেবাশীষ হালদার প্রমুখ। জীবনানন্দ দাশের কবিতা আবৃত্তি করেন আজমল হোসেন, ইমানুল হাকিম ও ঝুমু কর্মকার।
ছিল কবির লেখা ‘আবার আসিব ফিরে’র সঙ্গে নৃত্য পরিবেশনা। এরপর ‘জীবনানন্দ হয়ে সংসারে আজো আমি’ গানে কণ্ঠ মেলান শিল্পীরা।
এর আগে সকাল নয়টায় জীবনানন্দ দাশ স্মৃতি মিলনায়তনে কবির প্রতিকৃতিতে ফুল দেয় জাতীয় কবিতা পরিষদ। পরিষদের বরিশাল শাখার সভাপতি কবি তপংকর চক্রবর্তীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত কবিমেলায় আলোচনা করেন কবি অরূপ তালুকদার, পার্থ সারথি, আসমা চৌধুরী, মুকুল দাস, মোশতাক আল মেহেদী প্রমুখ। কবিতা পাঠ করেন শোভন কর্মকার, সিয়ামুল হায়াত, আতিকুর রহমান, অনিন্দ্য দ্বীপ।

সংশ্লিষ্ট খবর

রিয়াজ ও জাজের লড়াই

  ১৩, জুলা ২০১৫  |    2169

দ্বৈত গানে ফিরছেন তপু

  ১৫, ডিসে ২০১৫  |    358

আমি তোমাকেই বলে দিব …. লিরিক্স

  ৪, সেপ্টে ২০১৪  |    746